Advertisements

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছেই। এখন পর্যন্ত ৩ হাজার ২৮৫ জনের প্রাণ কেড়েছে এই ভাইরাস। বিভিন্ন দেশে ৯৫ হাজার ৪৮১ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে করোনাভাইরাস আঘাত হানার পর বিজ্ঞানীরা বলেছিলেন, প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরি করতে অন্তত ১৮ মাস সময় লেগে যাবে।

বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্পেনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক রোগী এইডস (এইচআইভি) রোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধ খেয়ে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে গেছেন।

মিগুয়েল অ্যাঞ্জেল বেনিটেজ (৬২) নামের ওই রোগী এখন পুরোপুরি সুস্থ। তিনি দেশটির সেভিল শহরের ভার্জেন ডেল রোসিও হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনায় আক্রান্ত হয়ে লোপিনাভির-রিতোনাভির নামের ওষুধ নিয়েছেন মিগুয়েল। কালেত্রা ব্র্যান্ডের এই ওষুধটি এইডস আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় প্রায় এক দশক ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

লোপিনাভির-রিতোনাভির নামের এই ট্যাবলেট রক্তে ভাইরাসের বংশবিস্তার রোধ বিশেষভাবে কার্যকর। বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, করোনাভাইরাস ফুসফুসে ব্যাপকভাবে বংশবিস্তারের সুযোগ পেলে তখন প্রাণহানির কারণ হতে পারে।

জ্বর দিয়ে এই ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হয়। এরপরে শুকনো কাশি দেখা দিতে পারে। প্রায় এক সপ্তাহ পরে শ্বাসকষ্ট শুরু হয়ে যায়। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে হালকা ঠাণ্ডা লাগা থেকে শুরু করে মৃত্যুর সব উপসর্গ দেখা দিতে পারে।

By Abraham

Translate »