Advertisements

রোহিঙ্গা ইস্যুতে মানবাধিকার লঙ্ঘনের দায়ে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চিকে দেওয়া সম্মাননা প্রত্যাহার করে নিয়েছে লন্ডন সিটি করপোরেশন (সিএলসি)।

বৃহস্পতিবার এমন সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের এ রাজধানী শহরটির কর্তৃপক্ষ।

আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, লন্ডনের ঐতিহাসিক এবং অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলো পরিচালনা করা সিএলসি কর্তৃপক্ষের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের ভোটে সু চির সম্মান বাতিল করা হয়।

সিএলসি কমিটির প্রধান ডেভিড ওটোন জানান, এ সিদ্ধান্তে মিয়ানমারে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে পৌর করপোরেশনের নিন্দা প্রতিফলিত হয়েছে। দেশটির সরকারের সঙ্গে অং সান সু চির ঘনিষ্ঠতার কারণেই তাকে দেওয়া এ সম্মাননা প্রত্যাহারের বড় কারণ।

গণতন্ত্রের জন্য অহিংস সংগ্রামের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০১৭ সালের মে মাসে সু চিকে লন্ডন পৌর করপোরেশনের পক্ষ থেকে এ বিশেষ সম্মাননা দেওয়া হয়েছিল।

২০১৭ সালের আগস্টে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর জাতিগত নিধনযজ্ঞ চালায়। এতে রাখাইনের ২৪ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা নিহত হন। প্রাণে বাঁচতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা।

এ পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগ এনে নেদারল্যান্ডসের হেগে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে (আইসিজে) মামলা করে আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়া। শুনানিতে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর পক্ষে সাফাই গেয়ে অং সান সু চির আন্তর্জাতিক মহলে তার অবশিষ্ট সম্মানটুকুও হারান। মামলার শুনানির পর চার অন্তর্বর্তী আদেশের মাধ্যমে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী রক্ষায় মিয়ানমারকে নির্দেশ দেন আইসিজে।

By Abraham

Translate »