Advertisements

ইতালির সেনাপ্রধান সালভাতোর ফারিনা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি এখন নিজ বাসভবনেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। রোববার দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। খবর বিবিসির।

ইতালির সংবাদ সংস্থা এজিআই জানাচ্ছে, সেনাপ্রধান নিজেও করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি এক বিবৃতিতে বলেন, আজ আমার পরীক্ষা করা হয়েছে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়েছে। আমি নিজের বাসভবনেই আছি। ভালো আছি।

আমার অনুপস্থিতিতে ডেপুটি জেনারেল ফেডেরিকো বোনাতো দায়িত্ব পালন করবেন।

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মিউজিয়াম, জিমনেশিয়াম, নাইট ক্লাবসহ বিভিন্ন ভেন্যু বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী গুইসেপ কন্টে।

রোববার পর্যন্ত দেশটিতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে অন্তত ৩৬৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা সাত হাজার ৩৭৫। পরিস্থিতি মোকাবিলায় লোম্বার্ডিসহ ১৪টি প্রদেশের অন্তত এক কোটি ৬০ লাখ মানুষকে বাধ্যতামূলকভাবে কোয়ারেন্টাইনে রাখার ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী গুইসেপ কন্টে। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ৩ এপ্রিল পর্যন্ত কেউ এই প্রদেশগুলো থেকে বেরুতে পারবে না। বাইরে থেকেও কেউ সেখানে প্রবেশ করতে পারবে না।

উত্তর ইতালিতে ইতোমধ্যেই ৫০ হাজারের মতো মানুষ কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে। নতুন সিদ্ধান্তের ফলে বাণিজ্যিক কেন্দ্র মিলান এবং পর্যটকদের মূল আকর্ষণ ভেনিসের মতো শহরও কোয়ারেন্টাইনের আওতায় থাকবে।

লোম্বার্ডির পুরো উত্তর অঞ্চল যেখানে এক কোটি লোকের বাস এবং ইতালির বাণিজ্যিক নগরী মিলান লক ডাউন বা বন্ধ রাখা হবে। তবে জরুরিভিত্তিতে কিছু করার প্রয়োজন হলে সেক্ষেত্রে নিয়মের ব্যত্যয় হতে পারে।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের উহানে প্রথমবারের মতো ধরা পড়া করোনাভাইরাস এ পর্যন্ত অন্তত ১০৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়েছে। এরই মধ্যে আক্রান্ত হয়েছেন অন্তত ১ লাখ ২ হাজার ২৩৭ জন, মারা গেছেন ৩ হাজার ৪৯৭ জন। এর মধ্যে শুধু চীনেই মারা গেছে তিন হাজারের বেশি।

By Abraham

Translate »