দেশ জুড়ে

অতিরিক্ত দামে মাস্ক বিক্রি: ১৬ লাখ টাকা জরিমানা, একজনের দণ্ড

Advertisements

কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে উচ্চমূল্যে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার (হাত ধোয়ার জীবানুনাশক) বিক্রির দায়ে পুরান ঢাকার মিটফোর্ডের একটি ওষুধের মার্কেটে ৮ প্রতিষ্ঠানকে পৌনে ১৭ লাখ টাকা জরিমানা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাশাপাশি এক ব্যবসায়ীকে এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত সুরেশ্বরী মেডিসিন প্লাজায় এ অভিযান চালানো হয়। র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম ভ্রাম্যমাণ আদালতের নেতৃত্ব দেন।

র‌্যাব জানায়, মিটফোর্ডের আকমল খান রোডে সুরেশ্বরী মেডিসিন প্লাজায় গোয়েন্দা নজরদারী চালানোর পর ক্রেতা সেজে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিনতে চাওয়া হয়। শুরুর দিকে ব্যবসায়ীরা তা না থাকার তথ্য দেয়। পরে উচ্চমূল্যে তা কেনা হয়। এরপর দুপুর ১২টার দিকে ওই মার্কেটে অভিযান শুরু হয়।

অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বলেন, অবৈধ মজুদ ও উচ্চ মূল্যে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিক্রির অপরাধে তপু অ্যান্ড ব্রাদার্সকে দুই লাখ টাকা, দেওয়ান এন্টারপ্রাইজের মালিককে এক বছরের জেল ও ৬ লাখ টাকা জরিমানা এবং আল ওয়ারী সার্জিকেলকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

তিনি জানান, একই অভিযানে লোকনাথ ড্রাগহ হাউজকে ৭৫ হাজার টাকা, মা মেডিসিন হাউজকে দেড় লাখ টাকা, ওয়েব মেডিসিনকে ৩ লাখ টাকা, আনোয়ারা সার্জিকেলকে ২ লাখ টাকা এবং সার্জি গ্লো হাউজকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সারওয়ার আলম বলেন, দেশে তিন ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবরে এসব অসাধু ব্যবসায়ীরা মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজারের কৃত্রিম সংকট তৈরি করেছিল। এরপর এসব পন্য উচ্চ মূলে বিক্রি করে আসছিল। তাদের মতো আরও অনেকে রয়েছে। সব অসাধু ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে অভিযান চলমান থাকবে।