Advertisements

পুলিশের প্রতিবেদন গোপন করে জালিয়াতির মাধ্যমে ভারতীয় নাগরিককে পাসপোর্ট দেয়ার অভিযোগে রাজশাহী পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালকসহ আটজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) দুপুরে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) রাজশাহী আঞ্চলিক কার্যালয়ে মামলাটি দায়ের করেন দুদকের প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মামুনুর রশিদ।

রাজশাহী পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক আবজাউল হোসেনসহ আটজনকে আসামি করে এ মামলাটি দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দুদক রাজশাহী অঞ্চলিক কার্যালয়ের উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম। মামলাটি আঞ্চলিক কার্যালয়ে রেকর্ড করা হয়েছে। মামলা নং-৪, তারিখ- ১২/০৩/২০।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন- ভারতীয় নাগরিক হাফেজ আহমেদ, পাসপোর্ট অফিসের এমএলএস রঞ্জু লাল, অফিস সহায়ক হুমায়ুন কবির, উচ্চমান সহকারীর দেলোয়ার হোসেন, ডাটা এন্ট্রি অপারেটর আলমাস উদ্দিন, ইব্রাহিম হোসেন ও মুদ্রাক্ষরিক আব্দুল ওয়াদুদ।

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ২০১৭ সালে ভারতের নারী নাগরিক হাফেজ আহমেদকে ভারতে থাকা অবস্থায় একটি পাসপোর্ট প্রদান করেন রাজশাহী পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। ঘটনা জানাজানি হওয়ার আগেই এই পাসপোর্ট ব্যবহার করে হাফেজ আহমেদ ভারত থেকে সৌদি আরবে চলে যান।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তারা এ সংক্রান্ত নথিপত্র গায়েব করে ফেলেছেন, তবে অভ্যন্তরীণ তদন্তে বিষয়টি ধরা পড়েছে।

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, পাসপোর্ট অফিসের এই জালিয়াতির বিষয়টি দুদকের প্রধান কার্যালয় থেকে তদন্ত করা হয়। যেহেতু ঘটনাস্থল রাজশাহী অফিসের আওতায় সেহেতু মামলাটি এ অফিসে রেকর্ড করা হয়েছে। মামলাটি তদন্ত করেছেন দুদকের প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মামুনুর রশিদ বলে জানান দুদকের এই কর্মকর্তা।

By Abraham

Translate »