Advertisements

ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দেশটির কর্নাটকের কালবুর্গি জেলায় নিজ বাড়িতে ৭৬ বছর বয়সী ওই বৃদ্ধ মারা যান। কর্নাটকের স্বাস্থ্যমন্ত্রী তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তেলেঙ্গানার একটি হাসপাতালে তাকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছিল। চিকিৎসকরা সন্দেহ করেছিলেন যে, তার শরীরে করোনাভাইরাস আছে। বৃহস্পতিবার সেই টেস্টের রিপোর্ট আসে ও জানা যায়, ওই ব্যক্তি করোনাতেই আক্রান্ত ছিলেন।

জানা যায়, গত ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ দিনেই সৌদি আরব থেকে ভারতে ফেরেন ওই বৃদ্ধ। সেই সময় তার ডাক্তারি পরীক্ষা হলেও করোনার উপসর্গ ধরা পড়েনি। গত ৫ মার্চ অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। এরপর তাকে নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। সেখানে পরীক্ষায় জানা যায়, করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তিনি।

নার্সিংহোম থেকে ওই বৃদ্ধকে হায়দরাবাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তবে সেখান থেকে তাকে বাড়িতে নিয়ে চলে যায় তার পরিবার। এরপর সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

এদিকে ভারতে প্রথম করোনা আক্রান্তের মৃত্যুর পরই চূড়ান্ত সতর্কতা জারি হয়েছে কর্ণাটকজুড়ে। বেঙ্গালুরুর সমস্ত স্কুল বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ দিয়েছে কর্ণাটক সরকার।

করোনাভাইরাসকে বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণার পর গতকালই বিদেশিদের যাবতীয় ভিসা বাতিল করে ভারত। শুক্রবার মধ্যরাত থেকে বিশেষ কারণ ছাড়া ভারতে প্রবেশ করতে পারবেন না কোনো বিদেশি। আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত বলবৎ থাকবে এই বিধিনিষেধ।

ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৩ জনে। এদের মধ্যে রয়েছেন ইতালির ১৬ জন নাগরিকও। ভারতে দিল্লি এবং সংলগ্ন এলাকাতেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।

বিশ্বজুড়ে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন অন্তত এক লাখ ২৭ হাজার জন এবং মারা গেছেন অন্তত চার হাজার ৮০০ জন।

By Abraham

Translate »