Advertisements

ইউরোপ থেকে বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও ইতালি থেকে ৯৬ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকায় অবতরণ করেছে কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইট। অথচ ইতালিতে মহামারি আকার ধারণ করেছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। বড় ধরনের চ্যালেঞ্জের মুখে দেশটি।

কাতারের জাতীয় পতাকাবাহী বিমান সংস্থাটির কিউআর-৬৩৪ ফ্লাইটটি ইতালির ৬৮ জনসহ জার্মানি ও ইউরোপের অন্যান্য দেশের ৯৬ জন যাত্রী নিয়ে সোমবার (১৬ মার্চ) সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিটের দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

এর আগে রোববার (১৫ মার্চ) বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) সংবাদ সম্মেলন করে জানিয়েছিল, সোমবার দুপুর ১২টা থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপ থেকে যাত্রী নিয়ে কোনো এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট বাংলাদেশে ঢুকতে পারবে না। যদি কোনো এয়ারলান্স এরপরও যাত্রী নিয়ে আসে, তবে তাদের খরচেই ফেরত পাঠানো হবে।

এরও আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী গত শনিবার (১৪ মার্চ) সন্ধ্যায় জানিয়েছিলেন, রোববার রাত ১২টার পর থেকে দুই সপ্তাহের জন্য যুক্তরাজ্য বাদে ইউরোপের দেশগুলো থেকে বাংলাদেশে ঢোকায় নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে।

সরকারের এই নিষেধাজ্ঞার ব্যত্যয় ঘটলো কেন জানতে চাইলে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান বলেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে আমরা একটি ফ্লাইট ঢোকার অনুমতি দিয়েছি। আমরা ইউরোপ থেকে যাত্রী আনতে নিষেধ করেছিলাম। এই ফ্লাইটটি যাত্রী নিয়ে আসার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি চেয়েছিল। মন্ত্রণালয় অনুমতি দিয়েছে। তবে তাদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনের শর্তে এই অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, কাতারের সিভিল অ্যাভিয়েশনকেও এ ব্যাপারে অসন্তোষের কথা জানানো হবে। এরপর আর কোনো ফ্লাইটকে কোনোভাবেই নামতে দেওয়া হবে না।

এদিকে, এই ফ্লাইটের ইউরোপীয় যাত্রীদের হজ ক্যাম্পে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিমানবন্দরের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শাহরিয়ার সাজ্জাদ। তিনি বলেন, তাদের হজ ক্যাম্পে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে। উপসর্গ না থাকলে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

By Abraham

Translate »