Advertisements

তৃতীয় দফায় ২৯ মার্চ পাকিস্তান সফরের কথা ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু করোনার প্রাদুর্ভাবে ঝুঁকি এড়াতে সেই সফরটি স্থগিত করেছে বিসিবি ও পিসিবি।

সোমবার ইমেইলের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এই খবর জানায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সেখানে বলা হয়েছে, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা শেষেই সফরটি আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। আরও বলা হয়েছে, পরবর্তী দিনক্ষণ আলোচনার মাধ্যমে নির্ধারিত করা হবে।

তৃতীয় ও শেষ ধাপের সফরে একটি ওয়ানডের সঙ্গে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টটি খেলার কথা ছিল। সেই লক্ষ্যে ২৯ মার্চ পাকিস্তান পৌঁছানোর কথা ছিল বাংলাদেশ দলের। প্রথম ওয়ানডেটি হওয়ার কথা ছিল ১ এপ্রিল আর টেস্ট শুরু হওয়ার কথা ছিল ৫ এপ্রিল। দুটি ম্যাচই হওয়ার কথা ছিল করাচি স্টেডিয়ামে। প্রথম টেস্টটি হয়েছিল ৭ ফেব্রুয়ারি, রাওয়ালপিন্ডিতে।

করোনা ভাইরাসের কারণে এরই মধ্যে ক্রীড়াঙ্গন থমকে গেছে। একের পর ক্রীড়া ইভেন্ট স্থগিত হয়ে গেছে। বেশ কিছু সিরিজ এর আগেই স্থগিত হয়ে গেছে। শ্রীলঙ্কার ইংল্যান্ড সফর স্থগিত হয়েছে কিছুদিন আগে। একইভাবে ভারতের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর ও নিউজিল্যান্ডের অস্ট্রেলিয়া সফরও স্থগিত হয়েছে। তাই পাকিস্তান সফরও যে স্থগিত হতে পারে তেমন একটা আভাস আগেই পাওয়া গিয়েছিল। অবশ্য এক্ষেত্রে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) দিকেই তাকিয়ে ছিল বিসিবি।

সফর নিয়ে প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সংবাদমাধ্যমকে বলেছিলেন, ‘পাকিস্তান আয়োজক, সিদ্ধান্তটা তারাই নেবে।’

পাকিস্তান সুপার লিগেও এর প্রভাব পড়েছে। পিএসএল থেকে ৯-১০ জন বিদেশি ক্রিকেটার চলে গেছেন। দেশটি এরই মধ্যে ঘরোয়া ওয়ানডে প্রতিযোগিতা পাকিস্তান কাপও স্থগিত করেছে।

By Abraham

Translate »