আন্তর্জাতিক

আমেরিকায় করোনা হানা; সামাজিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের আশঙ্কায় সেনা মোতায়েন

Advertisements

আমেরিকাসহ সারা বিশ্বে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নজিরবিহীন চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করেছে। এ ভাইরাসের প্রকোপে আমেরিকার অর্থনৈতিক ও স্বাস্থ্য খাতে বিরূপ প্রভাব পড়া ছাড়াও দেশটির অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তাও কঠিন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়েছে।

মার্কিন সাপ্তাহিকী নিউজ উইক এ কথা ফাঁস করে দিয়েছে যে, দেশটির সশস্ত্র বাহিনী বর্তমান সংকটময় মুহূর্তে সম্ভাব্য নাগরিক আন্দোলন ও বিক্ষোভ দমনের প্রস্তুতি নিচ্ছে এবং যেকোনো অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় কেন্দ্রের সঙ্গে সহযোগিতা জোরদার করেছে। এ লক্ষ্যে নিরাপত্তা রক্ষায় প্রাদেশিক কিংবা কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনীকে ব্যবহারের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য মার্কিন সেনাবাহিনী সব দিক খতিয়ে দেখছে। মার্কিন সেনাবাহিনীর ন্যাশনাল গার্ড বাহিনীর কমান্ডার জেনারেল জোসেফ ল্যাঙ্গেল বলেছেন, ‘করোনা ভাইরাসের প্রকোপ রোধ এবং এর ফলে সৃষ্ট সামাজিক সংকট মোকাবেলায় বিভিন্ন প্রদেশকে সহযোগিতার জন্য ন্যাশনাল গার্ড বাহিনীর হাজার হাজার সেনা সদস্যকে মোতায়েনের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।’

ন্যাশনাল গার্ড বাহিনী হচ্ছে আমেরিকার রিজার্ভ বাহিনীর অংশ যার সদস্য সংখ্যা চার লাখ ৫৬ হাজার এবং এটি কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকারের নিয়ন্ত্রণাধীন। প্রতিটি এলাকায় জীবাণু বিরোধী পরিচ্ছন্নতা অভিযান, বাড়িতে বাড়িতে খাদ্য সরবরাহের জন্য নিউইয়র্ক ও ক্যালিফোর্নিয়াসহ ২৭টি অঙ্গরাজ্যে ন্যাশনাল গার্ড বাহিনীকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। করোনা আতঙ্কে সামাজিক অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা দেখা দিয়েছে।

চিকিৎসা উপকরণসহ সুপার মার্কেটগুলোতে মানুষের উপচে পড়া ভিড় এবং নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের ঘটতি দেখা দেয়ায় অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তাহীনতা প্রকট আকার ধারণ করেছে।

এর বড় প্রমাণ হচ্ছে, আমেরিকায় হঠাৎ করে অস্ত্র বিক্রির পরিমাণ বেড়ে গেছে। অস্ত্র কেনার দিকে ঝুঁকে পড়া থেকে বোঝা যায় করোনা ভাইরাসের ফলে সৃষ্ট পরিস্থিতি নিয়ে মার্কিন নাগরিকরা উদ্বেগের মধ্যে রয়েছে। আমেরিকার একটি অস্ত্র বিক্রির দোকানের মালিক মার্ক হামেয বলেছেন, ‘অস্ত্রের ক্রেতারা তাদের ঘরবাড়ি রক্ষার জন্য অস্ত্রের দিকে ঝুঁকছে।’

ধারণা করা হচ্ছে, আমেরিকা জুড়ে করোনা ভাইরাসের প্রকোপে দেশটির চিকিৎসা ও আর্থিক খাতে সংকট দেখা দিয়েছে এবং এখন ব্যাপক নিরাপত্তাহীনতার আশঙ্কা করা হচ্ছে। ট্রাম্প প্রশাসন অর্থনৈতিক ও স্বাস্থ্যখাতে সৃষ্ট সংকট মোকাবেলায় ব্যর্থ হওয়ায় এখন সামাজিক সংকট প্রকট হয়ে উঠছে। সেনাবাহিনী দিয়ে সব শহরের নিয়ন্ত্রণ রক্ষার পদক্ষেপই এর প্রমাণ।

এক জরিপে দেখা গেছে, আমেরিকার ৬৩ শতাংশ মানুষ মনে করে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তাদের সমস্যার দিকে নজর দিচ্ছে না। এ কারণে অচিরেই সেদেশে সামাজিক অস্থিরতা ও নিরাপত্তাহীনতা দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

Leave a Reply