বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

অ্যাপ নিষিদ্ধ হওয়ায় যে টিকটক তারকারা বিপাকে

Advertisements

সীমান্ত উত্তেজনা নিয়ে চীনের বিরুদ্ধে বড় ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে ভারত। দেশটির তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় গত ২৯ জুন এক প্রজ্ঞাপন জারি করে ৫৯টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে। এ তালিকায় রয়েছে— টিকটক, লাইকি, শেয়ারইট, উইচ্যাট প্রভৃতি।

ভারতে টিকটক অ্যাপ তরুণ প্রজন্মের কাছে দারুণ জনপ্রিয়। অনেক তরুণ-তরুণী আছেন যারা এই অ্যাপ ব্যবহার করে মোটা অঙ্কের অর্থ আয় করেন। কিন্তু টিকটক বন্ধ ঘোষণার পর অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতির মুখে পড়েছেন তারা। প্রশ্ন উঠেছে হঠাৎ করে জনপ্রিয় হয়ে ওঠা এই তথ্যপ্রযুক্তি তারকাদের ভবিষ্যৎ নিয়েও। কয়েকজন টিকটক তারকাকে নিয়েই এই ফটো ফিচার।

হরিয়ানার গুরুগ্রামের তরুণ মঞ্জুল। তিনি হেয়ার স্টাইলের জন্য টিকটকে বেশ জনপ্রিয়। প্রায় ১৪ কোটি অনুসারী রয়েছে তার। টিকটকে ভিডিও পোস্ট করে মাসে প্রায় ৫ লাখ রুপি আয় করতেন মঞ্জুল।

মেধাবী শিক্ষার্থী গিমা আশি বাস করেন দিল্লিতে। টিকটকে তার অনুসারী রয়েছে এক কোটি। তিনিও এখান থেকে মাসে আয় করতেন প্রায় ৬ লাখ রুপি

আবেজ দরবার। কমেডি ভিডিও টিকটকে পোস্ট করে দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। ভক্তের সংখ্যাও কারো চেয়ে কম নয়। প্রায় ২ কোটি অনুসারী তার। মাসিক আয় ১৪ লাখ রুপি।

অবনীত কৌর জনপ্রিয় কয়েকটি ডান্স রিয়েলিটি শোয়ের প্রতিযোগী ছিলেন। বেশ কয়েকটি টেলিভিশন ধারাবাহিকেও কাজ করেছেন তিনি। অভিনয় করেছেন চলচ্চিত্রেও। টিকটকে তার অনুসারী রয়েছেন ৫০ লাখেরও বেশি। অবনীতের মাসিক আয় ১৬ লাখ রুপি।

টিকটকের অন্যতম জনপ্রিয় তারকা জান্নাত জুবায়ের। ২০১৯ সালে ভারতে টিকটকে তার অনুসারীর সংখ্যা ছিলো সবচেয়ে বেশি।  বর্তমানে তার ফলোয়ার ১ কোটি। এখান থেকে প্রতিমাসে তার আয় প্রায় ২০ লাখ রুপি।

Leave a Reply