Advertisements

আগামী বছর ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দিবেন কিনা সেটি একমাত্র লিওনেল মেসিই জানেন। অনেক নাটকীয়তার পর এই মৌসুমটি বার্সেলোনাতেই থেকে যাবার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এই আর্জেন্টাইন।

সিটির বিশ্বাস কাতালোনিয়া ছেড়ে আসতে পারলে ছয়বারের ব্যালন ডি’অর খেতাবজয়ী তাদের দলেরই চালকের আসনে বসতেন। সোমবার উলভসের বিপক্ষে অ্যাওয়ে ম্যাচকে সামনে রেখে গার্দিওলা বলেন, ‘আমার বিশ্লেষণ করার প্রয়োজন নেই। আমার মনে হয়, এর অনুভুতি মেসিই কিছুটা ভালো বর্ণনা করতে পারবে। এর সঙ্গে যোগ করার কিছু নেই আমার। সে বার্সেলোনার খেলোয়াড়। যে ক্লাবটিকে আমি ভালোবাসি। এর বেশি বলার কিছু নেই।’

আগামী গ্রীষ্মেই ফ্রি ট্রান্সফার ফিতে বার্সা ছাড়তে পারবেন মেসি। কিন্তু তখন তিনি আদৌ ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দিবেন কিনা সেটি নিয়ে অন্ধকারে আছেন চার বছরে ১৪টি ট্রফি এনে দিয়ে বার্সেলোনার সবচেয়ে সফল কোচ গার্দিওলা। তিনি বলেন, ‘আমি ঠিক জানি না। আমি অন্য মানুষের ইচ্ছা কি তা বলতে পারি না।’

মেসির ইউ টার্নের পর গ্রীষ্মকালীন দল বদলে ভ্যালেন্সিয়া থেকে তোরেস ও বোর্নমাউথ থেকে নাথান একেকে দলে ভিড়িয়েছে সিটি। এই বছর গার্দিওলার দলটি শুধুমাত্র লিগ কাপের শিরোপা জয় করতে পেরেছে। প্রিমিয়ার লিগে রানার আপ হলেও চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলের সঙ্গে তাদের পয়েন্টের ব্যবধান ছিল ১৮।

আবুধাবীর মালিকানাধীন সিটির জন্য শত মিলিয়ন অর্থ ব্যয় করা দলে নতুন খেলোয়াড় দলভুক্তির ঘাটতি বিষয়ে কোন অভিযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন গার্দিওলা। তিনি বলেন, ‘এখানে আসার পর থেকেই এই দলে আমি যা করতে পেরেছি তাতে সন্তুষ্ট। আমি মনে করি, ক্লাবটি শুধু আমার জন্য এতসব কিছু করেনি। বরং ক্লাব এবং আমাদের সবার জন্য করেছে। যা কিছু ঘটার, ঘটবে। খেলোয়াড়ের জন্য আমাদের যদি অপেক্ষা করার থাকে করতে হবে। তবে আমি খুশি। এই সব বিষয় নিয়ে আমার কোন অভিযোগ নেই। এই খেলোয়াড়দেরকে ক্লাবে পেয়ে আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি।’

এদিকে ক্লাবের সূচনা ম্যাচে অংশ নিতে পারছেন না দীর্ঘ সময় ধরে হাঁটুর ইনজুরি থাকা সার্জিও আগুয়েরো। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৌসুম পুর্ব অনুশীলনে থাকতে না পারায় আগামী সোমবারের ম্যাচে খেলতে পারবেননা আইমেরিক ল্যাপোর্তে।

Translate »