Advertisements

বাঙালিদের নানা পছন্দের খাবারের মধ্যে অন্যতম হল ঘি। আমারা অনেকেই ঘি খেতে পছন্দ করি। আবার অনেকেই কোলেস্টেরল, ওবেসিটি বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে ঘি খাওয়া থেকে বিরত থাকি। তবে ঘি আমাদের নানা রোগ নিরাময়ে সহায়তাও করে থাকে। তাই নিয়মিত খাবার তালিকায় ঘি থাকা উপকারী। চলুন তবে জেনে নিই ঘি এর নানা উপকারিতা সম্পর্কে।

ঘি এর সাহায্যে খাবার তাড়াতাড়ি হজম হয়। সঙ্গে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যাও দূর হয় এবং ঘি তে থাকা ফ্যাটি অ্যাসিড শরীরের এনার্জি এবং নির্দিষ্ট তাপমাত্রা বজায় রাখতেও সাহায্য করে। তাই নিয়মিত পাতে ঘি থাকা কিন্তু মাস্ট।

এছাড়া যাদের ব্লাড প্রেসার আছে তারাও ঘি খেতে পারেন। কারণ ঘি গুড কোলেস্টেরলের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে ও লিপিড প্রোফাইল এর মাত্রা কমাতে সাহায্য করে।

অন্যদিকে ঘি রাতে ভালো ঘুম হওয়ার ক্ষেত্রেও উপকারী। এছাড়া আয়ুর্বেদিক মত অনুযায়ী, যারা ঠাণ্ডা লাগার ধাত রয়েছে তারা সকালে নিয়মিত ঘি গরম করে নাকে টানলে ঠাণ্ডা লাগার উপশম থেকে মুক্তি পাবেন। তবে দৈনিক ৩-৬ চামচ ঘি খাওয়া উচিত। তার বেশী খেলে হিতে বিপরীত হতে পারে। এছাড়া শুধু যে খাবার পাতেই ঘি খেতে হবে তা নয়, বেশকিছু রান্নায় ঘি দিলে রান্নার স্বাদও ভালো হয়। সেক্ষেত্রে পাতে ঘি না নিলেও ঘি খাওয়াও হয়।

Translate »