Advertisements

বিপুল বিত্ত-বৈভবের মালিক হওয়া স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে কর্মরত ৪৫ কর্মকর্তা-কর্মচারীর সম্পত্তির উৎসের বিষয়ে অনুসন্ধান চালাচ্ছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কোটিপতি গাড়িচালক আব্দুল মালেক র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হওয়ার পর দুদক সচিব দিলোয়ার বখত এ তথ্য জানান।

ইতোমধ্যে স্বাস্থ্য খাতের ১২ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী ও তাদের স্ত্রীসহ ২০ জনের সম্পত্তির হিসাবও চেয়েছে দুদক।

৪৫ জনের তালিকায় এই ১২ জন ছাড়াও মালেকের নামও রয়েছে।

দুদক সচিব বলেন, প্রাথমিক তদন্তে ১২ কর্মকর্তা-কর্মচারীর নামে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পত্তির সন্ধান পাওয়ায় স্ত্রীসহ তাদের সম্পদ বিবরণী দাখিল করতে ১৬ সেপ্টেম্বর নোটিস পাঠানো হয়।

তিনি বলেন, “স্বাস্থ্য খাতের কিছু কর্মকর্তা-কর্মচারী সিন্ডিকেট করে সীমাহীন দুর্নীতির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ ও বিদেশে অর্থ পাচার করছেন এমন অভিযোগ পেয়ে ২০১৯ সাল থেকে অনুসন্ধান চালিয়ে এই ৪৫ জনের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রমাণ মিলেছে।”

দুদকের এক কর্মকর্তা বলেন, এদের মধ্যে একজনের বিরুদ্ধে শিগগিরই মামলা করা হবে। ১০ জনের সম্পদ বিবরণী যাচাই চলছে এবং সম্পদের হিসাব চেয়ে আরও ১১ জনকে নোটিস পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

By Abraham

Translate »