Advertisements

আজারবাইজানের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর গ্যাঞ্জায় আর্মেনিয়ার ছোড়া মিসাইলে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত ৪০ জন। দেশটির প্রসিকিউটর জেনারেলের কার্যালয় থেকে এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। খবর আল জাজিরার।

আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভের সহকারী হিকমত হাজিয়েভ এক টুইট বার্তায় জানিয়েছেন, ‘প্রাথমিক তথ্য অনুসারে ২০টিরও বেশ বাড়ি ধ্বংস হয়েছে।’ তবে হামলার বিষয়ে এখনও আর্মেনিয়ার কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

এএফপি জানিয়েছে, গ্যাঞ্জাতে শনিবার ভোরে আজারবাইজানে আর্মেনিয়ার দ্বিতীয় ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হেনেছে। তৃতীয় আরেকটি ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানে কৌশলগত শহর মিঙ্গেসেভিরে। আজারবাইজান আর্মেনীয় বিদ্রোহীদের রাজধানী স্টেপানাকার্টে গোলা নিক্ষেপ করার কয়েক ঘণ্টা পর এই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়।

এই হামলার ৬ দিন আগে একই শহরে আরেকটি এলাকাতেও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছিল আজারবাইজান। ওই হামলায় ১০ জন বেসামরিক নাগরিকের মৃত্যু হয়।

গেল ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এই যুদ্ধে এখন পর্যন্ত প্রাণ গেছে কয়েকশ বেসামরিক নাগরিক ও সেনা সদস্যের। শুরু থেকে ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানালেও তাতে কান দিচ্ছে না কোনো পক্ষই। এমনকি মস্কোতে হওয়া যুদ্ধবিরতিও মানছেন না কোনো দেশ।

Leave a Reply

Translate »