Advertisements

দেশীয় প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেকের তৈরি করোনা ভ্যাকসিন ‘ব্যানকোভিড’কে ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

শনিবার (১৭ অক্টোবর) গ্লোব বায়োটেকের ওয়েবসাইটে এ তথ্য জানানো হয়।

গ্লোব বায়োটেক লিমিটেডের কোয়ালিটি অ্যান্ড রেগুলেটরি অপারেশন্সের ম্যানেজার ও ইনচার্জ এবং টিকা আবিষ্কার গবেষক দলের সদস্য মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন।

এর আগে ৩০ সেপ্টেম্বর দেশীয় প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেকের তৈরি ভ্যাকসিনের বিষয়ে মার্কিন মেডিকেল জার্নাল বায়োআর্কাইভে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়।

বিজ্ঞাপন

মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমাদের গ্লোব বায়োটেক আবিষ্কৃত তিনটা করোনা ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) কর্তৃক স্বীকৃতি পেয়েছে। তাদের যে ল্যান্ডস্কেপ একটা তালিকা আছে, সেখানে। তারা আমাদের তিনটা ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেটকে অন্তর্ভুক্ত করেছে। গত ১৫ অক্টোবর তারা এ অন্তর্ভুক্তি করেছে। গতকাল রাতে বিষয়টি আমরা জানতে পেরেছি।’

অন্যদিকে গ্লোব বায়োটেকের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘গত ১৫ অক্টোবর আমাদের আবিষ্কৃত তিনটি ভ্যাকসিনকে কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছে। ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট তিনটি হলো D614G variant mRNA vaccine, DNA Plasmid vaccine এবং Adenovirus Type-5 Vector Vaccine। বাংলাদেশের গ্লোব বায়োটেকই বিশ্বের একমাত্র প্রতিষ্ঠান, যাদের সর্বোচ্চ তিনটি ভ্যাকসিনের নাম এ তালিকায় রয়েছে।’

Leave a Reply

Translate »