Advertisements

বার্সেলোনা ছেড়ে রোনালদিনহো ২০০৮ সালে চলে যাওয়ার পর কাতালান ক্লাবটির মূল তারকা হন লিওনেল মেসি। পেপ গার্দিওয়ালার অধীনে দুর্দান্ত সময় কাটাচ্ছিলেন লিও। কিন্তু হুট করেই মেসিকে প্রস্তাব দিয়ে বসে লস ব্লাঙ্কোসরা। কিন্তু আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড রিয়ালকে না করে ঝুঁকেছিলেন চেলসির দিকে।

ইতালির সাংবাদিক জিয়ানলুকা ডি মারজিও তার লেখা বইয়ে দাবি করেছেন, মেসির জন্য রিয়ালের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়া ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ বার্সাকে ২৫০ মিলিয়ন দিতে প্রস্তুত ছিল। কিন্তু মেসি ওই প্রস্তাবে সাড়া দেননি। রিয়ালকে বলে দেন, শুধু শুধু সময় নষ্ট করো না।

ঘটনাটা ২০১৩ সালের। মেসিকে দেওয়া রিয়ালের ওই প্রস্তাবের কথা অবশ্য ২০১৮ সালে ফাঁস করে দেয় একটি সংবাদ মাধ্যম। তবে জিয়ানলুকা এ বিষয়ে সবার থেকে পরিষ্কার ধারণা রাখেন বলেও মনে করা হচ্ছে। তার মতে, শুধু রিয়াল মাদ্রিদ নয়। মেসিকে পাওয়ার লড়াইয়ে ছিল ম্যানসিটি, পিএসজি, ইন্টার মিলান ও চেলসি।

তবে সেবার কারও প্রস্তাবে সাড়া না দিলেও ২০১৪ সালে চেলসিতে যেতে চেয়েছিলেন মেসি। জিয়ানলুকাই দিয়েছেন এই তথ্য। তখন চেলসির কোচ ছিলেন হোসে মরিনহো। মেসির বিরুদ্ধে স্পেনে কর ফাঁকির অভিযোগ ওঠায় তিনি ক্যাম্প ন্যুতে ছেড়ে স্টামফোর্ড ব্রিজে যাওয়ার আলাপ শুরু করেছিলেন। চেলসিও তখন মেসির জন্য ২৫০ মিলিয়নের রিলিজ ক্লজ দিতে রাজি ছিল। বেতন নিয়েও ছিল না কোন সংকট। তবে মেসি তার বাবার কথায় সেবারও চুপ হয়ে গিয়েছিলেন।

By Abraham

Translate »