Advertisements

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের নানা অনিয়ম-দুর্নীতির তদন্তে নেমে মেয়ে ও জামাতাকে নিয়োগের জন্য শিক্ষক নীতিমালা পবির্তন, রাষ্ট্রপতিকে অসত্য তথ্যপ্রদান করে অবসরগ্রহণসহ ২৩ অভিযোগের প্রমাণ পায় ইউজিসি

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) দেওয়া তদন্ত প্রতিবেদনকে পক্ষপাতমূলক দাবি করে অভিযোগের বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান।

ইউজিসির তদন্ত প্রতিবেদন নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য সম্পর্কে নিজের অবস্থান জানাতে রবিবার (২৫ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি এ দাবি জানান।

উপাচার্য এম আব্দুস সোবহান বলেন, “যে কোনো আমলযোগ্য অভিযোগের তদন্ত বাঞ্চনীয়। আমি তদন্তের বিপক্ষে নয়। আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগসমূহ ‘যথাযথ’ হলে তদন্তে আমার একশভাগ সম্মতি আছে। তবে সেই তদন্ত হতে হবে যথাযথ প্রক্রিয়ায়, আইনসিদ্ধভাবে গঠিত ‘পক্ষপাতহীন’ তদন্ত কমিটির মাধ্যমে। এ বিষয়ে আমি স্পষ্টভাবে গত ৯ সেপ্টেম্বর ইউজিসি-এর চেয়ারম্যানকে পত্র দিয়ে জানিয়েছিলাম।”

তিনি আরও বলেন, “আমি আশা করেছিলাম সেই পত্র বিবেচনায় নিয়ে চেয়ারম্যান মহোদয় পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন কিন্তু বাস্তবে তা ঘটেনি। বরং আমি মিডিয়ার মাধ্যমে জানতে পেরেছি ইতোমধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে। বলাবাহুল্য প্রতিবেদনটি তাই একপেশে এবং পক্ষপাতমূলক।”

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে উপাচার্য এসব অভিযোগসমূহের বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি করেন।

By Abraham

Translate »