Advertisements

ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর অবমাননার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এ সময় শিক্ষার্থীরা ফ্রান্সের জাতীয় পতাকায় আগুন ধরিয়ে দেন। ফ্রান্সের পণ্য বয়কট, ব্যঙ্গচিত্র অপসারণ ও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান। মঙ্গলবার দুপুর দুইটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক ডেইরি গেট সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

মানবন্ধনে ইতিহাসের বিভাগের শিক্ষার্থী ইব্রাহীম খলিল বলেন, পশ্চিমারা ইসলামফোবিয়াকে পুঁজি করে নির্বাচনী বৈতরনী পার হতে চায়। ইসলামের অপমানে তাদের রাজনৈতিক ফায়দা নিহিত রয়েছে। এ ধরনের বর্বর সংস্কৃতির বিরুদ্ধে আমাদের সচেতন হতে হবে। এবং তাদের পণ্য থেকে শুরু করে সবকিছুকে বয়কট করতে হবে। এজন্য আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করি যেন বাংলাদেশ রাষ্ট্রীয়ভাবে এ ঘটনার নিন্দা ও ফরাসি পণ্য বয়কটের ঘোষণা দেন।

অপর এক শিক্ষার্থী মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘হৃদয়ের স্পন্দন, আমাদের প্রিয় নবীকে নিয়ে ফ্রান্স যে ধৃষ্টতা দেখিয়েছে মুসলমান হিসেবে আমরা তা কোনভাবেই মেনে নিতে পারি না। এই ষড়যন্ত্র নতুন কিছু নয় অতীতেও এ ধরনের ঘৃণ্য অপকর্ম তারা করেছে। এর প্রতিবাদ শুধু মুখে করলেই হবে না আমাদের লিখনীর মাধ্যমেও উপযুক্ত জবাব দিতে হবে। বিদ্বেষী শক্তিকে বুঝিয়ে দিতে হবে যত ষড়যন্ত্রই তারা করুক এই বিশ্বে ইসলামই টিকে থাকবে।

শিক্ষার্থীরা আরো বলেন, ‘আজ আমাদের দেশেও তথাকথিত সুশীলরা প্রগতির নামে ইসলামকে জঙ্গী বলে আখ্যা দিতে চাচ্ছে। আজ ইসলামের মৌলিক শিক্ষাগুলোকে তারা জামাত শিবিরের ট্যাগ দিয়ে ঘৃণ্য মানসিকতার পরিচয় দিয়েছে।’

Translate »