Advertisements

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচন শেষ হয়ে গেলেও উত্তাপ কমছে না। খ্যাপাটে ডোনাল্ড ট্রাম্প ভোট নিয়ে একের পর এক অভিযোগ করে যাচ্ছেন। এখন তার সময় কাটছে মামলা সংক্রান্ত কাজে। ওদিকে জো বাইডেন হোয়াইট হাউজে কাকে কী দায়িত্ব দেবেন, সেই প্রস্তুতিতে ব্যস্ত আছেন।

ফক্স নিউজ জানিয়েছে, মিশিগানের ওয়েস্টার্ন ডিস্ট্রিক্টে ট্রাম্প মামলায় অভিযোগ করেছেন তার প্রতিনিধিদের ভোট গণনা দেখতে দেয়া হয়নি। স্থানীয় কর্মকর্তারা তাকে বাধা দিয়েছেন বলে দাবি তার।

বাইডেন উইলমিংটন, ডেলাওয়্যারে রুদ্ধদ্বার বৈঠক সেরেছেন বলে জানিয়েছে আল-জাজিরা। হোয়াইট হাউজের চিফ অব স্টাফ পদে কাকে দায়িত্ব দেবেনে, সেই আলোচনা সারেন তিনি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তার দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সঙ্গী এবং নির্বাচনী প্রচারের উপদেষ্টা রন ক্লেন এই পদে বসতে পারেন।

বাইডেন এখন বেশ কৌশলে নির্বাচন নিয়ে কথা বলছেন। এদিন সাংবাদিকদের বলেন, ‘ট্রাম্পের পরাজয় স্বীকার না করাটা বিব্রতকর।’

ট্রাম্প যে মিশিগানে মামলা করেছেন, সেখানে টিকতে পারবেন না বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন দেশটির সিনিয়র আইনজীবীরা। এই রাজ্যে তিনি ১ লাখ ৪৮ হাজার ভোটে হেরেছেন। খুইয়েছেন ১৬টি ইলেকটোরাল ভোট।

বাইডেন এখন পর্যন্ত ২৯০টি ইলেকটোরাল ভোট পেয়েছেন। ট্রাম্প ২১৭টি।

ট্রাম্প ৫ ঘণ্টা আগেও ভোটে প্রতারণার অভিযোগ তুলে ফেইসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করেন। সেই ভিডিওতে দুই ব্যক্তিকে কয়েকটি কালো ব্যাগ থেকে কিছু একটা বের করতে দেখা যায়। আবার ডাস্টবিনের মতো জায়গা থেকে ব্যাগে তারা কিছু ভরেন।

স্বাধীন ফ্যাক্ট-চেকিং সাইটকে উদ্ধৃত করে ফেইসবুক বলেছে, ‘ভিডিওটি অসম্পূর্ণ। রয়টার্সের প্রতিবেদনেও এটিকে ‘মিথ্যা’ বলা হয়েছে।

Translate »