Advertisements

প্রিলিমিনারিতে উত্তীর্ণ শিক্ষানবিশ আইনজীবীরা তালিকাভুক্তির দাবিতে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মশাল মিছিল করেছেন।

শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে মিছিলটি শাহবাগের উদ্দেশে রওনা হয়। পরে মিছিলটি ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউটের সামনে গেলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

লিখিত পরীক্ষা মওকুফ করে ভাইভার মাধ্যমে প্রিলিমিনারি উত্তীর্ণ শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের অ্যাডভোকেট হিসেবে তালিকাভুক্তির দাবিতে কয়েকমাস ধরে আন্দোলন করছেন তারা। ধারাবাহিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে শনিবার সন্ধ্যায় শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের মশাল মিছিলের কর্মসূচি ছিল। তবে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা বলছেন, কোনো ধরনের পূর্ব অনুমতি ছাড়া রাজপথে মশাল মিছিল করায় এবং জনগণের নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনা করে তাদের ছত্রভঙ্গ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সম্মিলিত আইনজীবী পরিষদের আহ্বায়ক ফজলে রাব্বি স্বরণ বলেন, সম্প্রতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্কুল/কলেজের পরীক্ষার ক্ষেত্রে অটোপ্রমোশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ফলে আমাদের দাবিটি যে যৌক্তিক সেটি প্রমাণিত হয়েছে। আমাদের যৌক্তিক দাবির পক্ষে ইতোমধ্যে জাতীয় সংসদে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। আমরা আইনমন্ত্রীকেও বিষয়টি অবহিত করেছি। তিনি আশ্বাসও দিয়েছেন।

পুলিশের লাঠিচার্জ নিয়ে তিনি বলেন, আমরা প্রায় ৩০০ জন শান্তিপূর্ণভাবে মশাল মিছিল করছিলাম। সেখানে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে, এতে আমাদের কয়েকজন আহত হয়েছেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের শান্তিপূর্ণ ও অহিংস আন্দোলন চলবে। এ সময় প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সবার সদয় দৃষ্টি কামনা করেন তিনি।

এদিকে, শিক্ষানবিশ আইনজীবীদের অন্যতম নেতা ফজলে রাব্বি স্মরণ সদ্যঘোষিত যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক হিসেবে মনোনীত হয়েছেন। তবে তিনি কোনো ধরনের উদযাপন থেকে নিজেকে বিরত রেখেছেন। তিনি বলেন, ১৩ হাজার শিক্ষানবিশ আইনজীবীর ন্যায্য এ দাবি মেনে না নেয়া পর্যন্ত কোনো উদযাপন নয়।

Translate »