Advertisements

পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) প্রথম এলিমিনেটর ম্যাচে জয় পেয়েছে তামিম ইকবালের লাহোর কালান্দার্স। পেশাওয়ার জালমিকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে লাহোর।

এই জয়ের রাতে লাহোরের হয়ে তামিম করেন ১০ বলে ১৮ রান।

 

করাচি স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে ৯ উইকেটে ১৭০ রান করে পেশোয়ার জালমি। জবাবে ব্যাট করতে নেমে মোহাম্মদ হাফিজের দারুণ ব্যাটিংয়ে এক ওভার হাতে রেখে জয় তুলে নেয় লাহোর কালান্দার্স।

১৭১ রানের টার্গেটে ব্যাট করেত নেমে শুরুতেই আউট হন ফখর জামান। ভালো শুরু আভাস দিয়েছিলেন তামিম ইকবাল। সাকিব মাহমুদের করা তৃতীয় ওভারে একটি চার ও একটি ছয়ও মেরেছিলেন তামিম। তবে আর এগোতে পারেননি তিনি। সাকিবের ওভারের শেষ বলেই মারতে গিয়ে দলীয় ২৫ রানের মাথায় ১০ বলে ১৮ রান করে আউট হন তামিম। এরপর সোহেল আক্তার আউট হলে ৩৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে লাহোর কালান্দার্স।

চতুর্থ উইকেট জুটিতে ৫৫ রান যোগ করে সেই চাপ ভাল করেই সামাল দেন মোহাম্মদ হাফিজ ও বেন ডাঙ্ক। ২০ রান করে আউট হন ডাঙ্ক। হাফিজ পঞ্চম উইকেটে সামিত প্যাটেলকে নিয়ে আরও ৪২ রান যোগ করে আশা বাঁচিয়ে রাখেন। ৩৪ বলে অর্ধ শত তুলে নেন হাফিজ।

শেষ দুই ওভারে জয়ের জন্য লাহোরের দরকার ছিল ২০ রান। ওয়াহাব রিয়াজের করা ১৯তম ওভারেই হাফিজ ও ডেভিড উইজি ২০ রান তুলে নেন। ফলে এক ওভারে হাতে রেখেই ৫ উইকেটের জয় তুলে নেয় লাহোর কালান্দার্স। হাফিজ ৪৬ বলে ৭৪ ও উইজি ৭ বলে ১৬ রানে অপরাজিত ছিলেন। পেশোয়ার জালমির সাকিব ৩টি এবং রাহাত আলী ও মোহাম্মদ ইমরান ১টি করে উইকেট নেন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৭০ রান করে পেশোয়ার জালমি। শোয়েব মালিক ৩৯, হারডাস ভিলজোয়ে ৩৭ ও ফাফ ডুপ্লেসিস ৩১ রান করেন। লাহোরের দিলবার হোসেন ৩টি এবং শাহীন শাহ আফ্রিদি, হারিস রউফ ও উইজি ২ট করে উইকেট নেন।

রোববার (১৫ নভেম্বর) ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে দ্বিতীয় এলিমিনেটর ম্যাচে মুলতান সুলতানসের মুখোমুখি হবে তামিমের লাহোর কালান্দার্স।

By Abraham

Translate »