Advertisements
উয়েফা নেশন্স লিগে ইংল্যান্ডের স্বপ্ন ভেঙ্গে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে বেলজিয়াম। থ্রি লায়নদের ২-০ গোলে হারিয়ে গেল মাসের হারের প্রতিশোধ নিয়েছে ফিফা র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে থাকা রেড ডেভিলরা। এ জয়ে এ লিগের দুই নম্বর গ্রুপে ১২ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে আছে বেলজিয়াম। ৭ পয়েন্ট নিয়ে তিনে ইংল্যান্ড।
লুভেনে বেলজিয়ামের উল্লাস আর ইংল্যান্ডের হতাশা। ম্যাচের আগে ঘুণাক্ষরেও এমন ক্ষণের কথা ভেবেছিলো থ্রি লায়ন সমর্থকরা? ১৯৯৯ ও ২০১২ সালে ব্যাক টু ব্যাক বেলজিয়ামের বিপক্ষে জয়ের সুখস্মৃতি আছে ইংল্যান্ডের। তবে, বদলেছে সময়। আর বদলে যাওয়া দিনে বেলজিয়াম এখন অনেক পরিণত। তা হাড়ে হাড়েই টের পেলো সাউথগেটের দল।
নেশন্স লিগে গেল মাসে ওয়েম্বলিতেও ফিফা র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে থাকা বেলজিয়ামকে তুড়ি মেড়ে উড়িয়ে দিয়েছিলো ইংল্যান্ড। কিং পাওয়ারে যে সফরটা এতটা কঠিন হবে সেটা না ভাবলেও চ্যালেঞ্জের জন্য প্রস্তুত ছিলো ইংল্যান্ড। শেষ পর্যন্ত রেড ডেভিলদের কাছে ভেঙ্গেছে সেমির স্বপ্ন। ইংলিশদের হারিয়ে সেমিফাইনালে বেলজিয়াম।
এর আগে লুভেনে শুরুটা ভালই করেছিলো দু’দল। যুদ্ধের ময়দানে লড়াইটাও হয়েছে সমানে সমান। রোমাঞ্চকর দ্বৈরথে কখনো হ্যারি কেইন আবার কখনো লুকাকুর আক্রমণ। চোখ জুড়িয়েছে সমর্থকদের। দশ মিনিটেই ইউরি তিলেমানস ম্যাজিক। যোগানদাতা অভিজ্ঞ রোমেউ লুকাকু। সমতা ফেরাতে পরের মিনিটেই সুযোগ পেয়েছিলেন হ্যারি কেইন। কিন্তু টটেনহ্যাম তারকার আলোয় আলোকিত হতে পারেনি ইংল্যান্ড।
উল্টো ২৩ মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনাকে ফাউল করে বসেন রাইস। ভুলের মাসুল গুণতে হয় থ্রি লায়নদের। ফ্রি কিক থেকে দুর্দান্ত গোল করে কিং পাওয়ারে রাজা বনে যান মার্টিনস। একপাশে রবার্তো মার্টিনেজের উচ্ছ্বাস, অন্যকূলে তখন দিশেহারা সাউথগেট। কে হবেন কাণ্ডারী?
কিন্তু না পাঞ্জেরীর বেশে হাজির হতে পারেননি হ্যারি কেইন, ট্রিপিয়াররা। উল্টো শেষ দিকে লুকাকু নিশ্চিত কয়েকটি সুযোগ না হারালে ব্যবধান আরো বাড়াতো বেলজিয়াম। ২-০ গোলের মধুর প্রতিশোধের পাশাপাশি সেমিফাইনাল নিশ্চিত করার আনন্দ নিয়ে মাঠ ছাড়ে বেলজিয়াম।

By Abraham

Translate »