Advertisements

খবরে বলা হয়েছে, ব্রিটেনের এক সাংসদের করোনা পজিটিভ আসে। তার আগেই ওই সাংসদের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। এই কারণে দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য সংস্থা (এনএইচএস) তাকে সেলফ আইসোলেশনে থাকার পরামর্শ দিয়েছে।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী ভালো আছেন এবং তার কোভিড-১৯ এর কোনো লক্ষণ নেই।সেলফ আইসোলেশনে থাকাকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুসরণ করে ডাউনিং স্ট্রিট থেকে প্রধানমমন্ত্রী তার দাপ্তরিক কার্যক্রম চালিয়ে যাবেন।

গত বৃহস্পতিবার সকালে কয়েকজন সংসদ সদস্যের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। পরে বৈঠকে উপস্থিত সংসদ সদস্য লি অ্যান্ডারসনের করোনার লক্ষণ ধরা পড়ে এবং তার পরীক্ষা করা হয়। অ্যাশফিল্ডের ওই সংসদ সদস্যের করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এলে বরিস জনসনকে সেলফ আইসোলেশনে নেওয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে সংসদ সদস্য লি অ্যান্ডারসন ফেসবুকে একটি ছবি পোস্ট করেন। সেই ছবিতে দেখা যায় তাদের কারো মুখেই মাস্ক ছিল না।

গত এপ্রিলে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। সেসসময় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি। সুস্থ হওয়ার পর বরিস জানিয়েছিলেন, চিকিৎসকদের একান্ত চেষ্টায় তিনি সুস্থ হয়েছেন। এমন অবস্থা হয়েছিল যে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণার জন্যও প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তবে সে যাত্রায় বেঁচে যান তিনি।

Translate »