Advertisements

বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনায় ফেরানোর প্রত্যাশা নিয়ে স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তীতে বছরজুড়ে অনুষ্ঠান করবে বিএনপি।

রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, গণতন্ত্র, বিচার ব্যবস্থা, গণমাধ্যম প্রতিটি ক্ষেত্রে আজ কী অবস্থা- এটা ব্যাখ্যার প্রয়োজন হয় না। মুক্তিযুদ্ধের সব চেতনা আজ ভূলুণ্ঠিত। স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে আমাদের মূল থিম থাকবে, আমরা বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনায় ফিরিয়ে নিতে চাই এবং সেই চেতনাকে আমরা প্রতিষ্ঠা করতে চাই। এটা হবে বিএনপির সূর্বণজয়ন্তী উদযাপনের মূল লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য। আমরা জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সুবর্ণজয়ন্তী পালন করতে চাই।

গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলনে স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম উপস্থিত ছিলেন।

২০২১ সালে বছরব্যাপী নানা আয়োজনে স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। এ লক্ষ্যে গঠন করা হয়েছে একটি উদযাপন কমিটিও। শনিবার এ কমিটির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে সবার মতামত নিয়ে প্রাথমিক কর্মসূচি চূড়ান্ত করা হয়।

কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- রচনা প্রতিযোগিতা, অংকন প্রতিযোগিতা, চিত্র প্রদর্শনী, বিষয়ভিত্তিক প্রকাশনা, জিয়াউর রহমানের কর্মসূচিভিত্তিক কর্মশালা, বিএনপির শাসনামলের সাফল্য, পুস্তিকা প্রকাশ, লিফলেট বিতরণ, ডকুমেন্টারি নির্মাণ, নৃত্যনাট্য, পথনাটক, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আলোচনা সভা, মহানগর-জেলা-উপজেলা পর্যায়ে আলোচনা সভা, সমাবেশ ও শোভাযাত্রা।

সংবাদ সম্মেলনে মোশাররফ হোসেন বলেন, এসব কর্মসূচি বাস্তবায়নে অর্থ, প্রচার, প্রকাশনা, ব্যবস্থাপনা, সাজসজ্জা, দফতর, সেমিনার-সিম্পোজিয়াম, সাংস্কৃতিক ও মিডিয়া উপ-কমিটি গঠন করা হবে। এছাড়া বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন বিশেষ করে মুক্তিযোদ্ধা দল ও মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করবে।

Leave a Reply

Translate »