শেষ দিকের গোলে লিভারপুলের হোঁচট

Advertisements

প্রথমার্ধে দারুণ খেলা লিভারপুল খেই হারাল বিরতির পর। শেষ দিকে গোল খেয়ে অবনমন অঞ্চলের দল ওয়েস্ট ব্রমউইচ অ্যালবিয়নের বিপক্ষে পয়েন্ট হারিয়েছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল।

অ্যানফিল্ডে রোববার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়েছে। সাদিও মানের গোলে লিভারপুল এগিয়ে যাওয়ার পর সমতা টানেন সেমি আজায়ি।

শুরু থেকে বল দখলে একচেটিয়া আধিপত্য করা লিভারপুল দ্বাদশ মিনিটে পায় সাফল্যের দেখা। দারুণ এক গোলে দলকে এগিয়ে নেন মানে। জোয়েল মাতিপের ক্রস ডি-বক্সে বুক দিয়ে নামিয়ে ডান পায়ের শটে জালে পাঠান সেনেগালের এই ফরোয়ার্ড।

প্রথমার্ধে ৮২ শতাংশ বল দখলে রেখে গোলের উদ্দেশে ১০টি শট নেওয়া লিভারপুল লক্ষ্যে রাখতে পারে অবশ্য ওই একটিই। বেশিরভাগ সময় নিজেদের ঘর সামলাতে ব্যস্ত থাকা ওয়েস্ট ব্রমউইচ বিরতির আগে গোলের উদ্দেশে শট নিতে পারে কেবল একটি।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে জর্ডান হেন্ডারসনের জোরালো শট অল্পের জন্য লক্ষ্যে থাকেনি। এরপর প্রতিপক্ষের রক্ষণে গিয়ে বারবার খেই হারিয়ে ফেলছিলেন মোহামেদ সালাহ, রবের্তো ফিরমিনোরা।

খেলার ধারার বিপরীতে ৭২তম মিনিটে গোল খেতে বসেছিল আগের ম্যাচে ক্রিস্টাল প্যালেসকে ৭-০ ব্যবধানে হারানো লিভারপুল। দারুণ এক সেভ করে এ যাত্রায় দলকে বাঁচান গোলরক্ষক আলিসন।

৮২তম মিনিটে আর রক্ষা হয়নি চ্যাম্পিয়নদের। সফরকারীদের সমতায় ফেরান আজায়ি। সতীর্থের ক্রসে তার হেড পোস্টে লেগে জালে জড়ায়।

শেষ দিকে গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিলেন ফিরমিনো। ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের প্রচেষ্টা রুখে দিয়ে ওয়েস্ট ব্রমউইচের পয়েন্ট নিশ্চিত করেন গোলরক্ষক।

১৫ ম্যাচে নয় জয় ও পাঁচ ড্রয়ে ৩২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে লিভারপুল। সমান ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে এভারটন দুইয়ে, ২৮ পয়েন্ট নিয়ে লেস্টার সিটি তিনে আছে।

১৪ ম্যাচে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড চারে, এক পয়েন্ট কম নিয়ে ম্যানচেস্টার সিটি আছে পাঁচ নম্বরে।