দায়িত্ব নিয়েই ১৫ নির্বাহী আদেশে সই বাইডেনের

Advertisements

যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন জোসেফ রোবিনেট বাইডেন জুনিয়র। প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস তার শপথ বাক্য পড়ান। পারিবারিক একটি বাইবেল হাতে শপথ গ্রহণ করেন ৭৮ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট বাইডেন।

স্থানীয় সময় বুধবার শপথ বাক্য পাঠের পর তার প্রথম সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আমেরিকানের প্রেসিডেন্ট হিসেবে কাজ করার অঙ্গীকার করেন। গণতন্ত্রই বিদ্যমান রয়েছে- এ কথা উল্লেখ করে তিনি সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ‘অসভ্য লড়াই’অবসান এবং জনগণের ঐক্য কামনা করেছেন।

এরপর সিনেটর কামালা হ্যারিস যুক্তরাষ্ট্রের ৪৯তম ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন। সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি সোনিয়া সোটোমেয়র তার শপথ বাক্য পাঠ করান। ৫৬ বছর বয়সী কামালা হ্যারিস যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ এবং ভারতীয় বংশোদ্ভূত একজন নারী হিসেবে ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে আসীন হলেন।

সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন, জর্জ ডব্লিউ বুশ, বারাক ওবামা এবং বিদায়ী ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও তার স্ত্রী কারেন পেন্স শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

প্রেসিডেন্ট বাইডেন তার দায়িত্ব গ্রহণের পর প্রথম দিনেই প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরে যাওয়া, বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কর্তৃক আরোপিত কতিপয় মুসলিম রাষ্ট্রের জনগণের যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা বাতিল এবং ফেডারেল অফিসগুলোতে মাস্ক বাধ্যতামূলকসহ ১৫টি নির্বাহী আদেশ ও দুটি নির্বাহী কর্মে স্বাক্ষর করেন।

অন্যদিকে ভাইস প্রেসিডেন্ট কামালা হ্যারিস সিনেটের প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার দায়িত্বের অংশ হিসেবে মিশিগান রাজ্য ডেমোক্রেটিক পার্টি থেকে সদ্য নির্বাচিত দুইজন এবং ক্যালিফোর্নিয়ায় তার নিজ সিনেট আসন শুন্য হওয়ায় সেখান থেকে মনোনীত একজন- মোট তিনজন সিনেটরের শপথ বাক্য পাঠ করান।

এর আগে বাইডেন প্রেসিডেন্ট ওবামার ২০০৯-২০১৬ মেয়াদে দেশটির ৪৭তম ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। প্রেসিডেন্ট বাইডেন ১৯৭৩ সালের ৩ জানুয়ারি থেকে ২০০৯ সালের ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত দেলওয়ারের সিনেটর হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। আর ভাইস প্রেসিডেন্ট হ্যারিস ২০১৭-২০২১ পর্যন্ত ক্যালিফোর্নিয়ার সিনেটর এবং ২০১১-২০১৭ পর্যন্ত ওই রাজ্যের এটর্নি জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

এদিকে ১৫০ বছরের ঐতিহ্য ভঙ্গ করে নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত ছিলেন সদ্য বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সকালেই তিনি তার আগের সিদ্ধান্ত অনুয়ায়ী ফ্লোরিডার উদ্দেশ্যে হোয়াইট হাউজ ত্যাগ করেন। তবে তিনি ‘কোন এক ফর্মে’ আবারো রাজনীতিতে ফিরে আসার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ঘনিষ্ট সহযোগিদের উদ্ধৃতি দিয়ে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে ইতোমধ্যে তিনি ‘প্যাট্রিয়ট পার্টি’ নামের একটি রাজনৈতিক দল গঠনের ব্যাপারে তার লোকজনের সাথে কথা বলেছেন। প্রচুর অর্থ ও সময় ব্যায় সাপেক্ষ এ ধরনের কোন দল গঠন আদৌ সম্ভব হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে পত্রিকাটি বলেছে, সেক্ষেত্রে রিপাবলিকান পার্টি থেকেই প্রথমে বিরোধীতার সন্মুখীন হতে হবে নব-গঠিত এ দলটিকে।