হট সিনে পটু নন সালমান : ক্যাটরিনা

Advertisements

অনেক বছর আগে, যখন চলচ্চিত্র অঙ্গনে ‘ম্যায়নে পিয়ার কিয়ুঁ কিয়া’ দিয়ে ক্যাটরিনা কাইফকে ফের পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন সালমান খান, তখন তাঁদের রসায়ন দেখে উচ্ছ্বসিত হয়েছিলেন ভক্তরা। সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার কিছুদিন পরেই শোবিজপাড়ায় গুঞ্জন চরমে ওঠে, সালমান ও ক্যাটরিনা চুটিয়ে প্রেম করছেন। দীর্ঘদিন তাঁরা একসঙ্গে ছিলেন, যত দিন না তাঁদের সম্পর্কে চিড় ধরে এবং সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

বিচ্ছেদের পর অনেকে ভেবেছিলেন, রুপালি পর্দায় সালমান-ক্যাটরিনাকে আর দেখা যাবে না। তবে ভক্তদের এ মনোভাবকে তাঁরা ভুল প্রমাণ করেন এবং দুটি সিনেমা উপহার দেন—‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’ ও ‘ভারত’।

ভারতের বিনোদনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ফিল্মিবিট ডটকমের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’-এর সিক্যুয়াল ‘এক থা টাইগার’ সিনেমাতেও সালমানের সঙ্গে কাজ করেছেন ক্যাটরিনা। এ সিনেমায় সালমানের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে এক পুরোনো সাক্ষাৎকারে ক্যাটরিনা বলেন, রোমান্টিক দৃশ্যে সালমান পটু নন।

রেডিফকে দেওয়া সেই সাক্ষাৎকারে ক্যাটরিনার কাছে প্রশ্ন রাখা হয়েছিল, রোমান্টিক অভিনেতা, না কি অ্যাকশন হিরো হিসেবে সালমানকে পছন্দ করেন? উত্তরে এ আবেদনময়ী বলেন, ‘দুটোই, আমার মনে হয়। এখন দর্শক অ্যাকশন-রোমান্টিক পছন্দ করে এবং তা ভালো চলে।’

‘একটি বিষয়, আমি মনে করি না যে রোমান্টিক দৃশ্য ঠিকঠাক চালনা করতে পারেন সালমান। এতে তিনি খুব বিরক্ত হন। তো, আমি মনে করি, বিরতি নেওয়া ভালো হবে এবং তিনি অ্যাকশন সিনেমা করতে পারেন,’ বলেন ‘জিরো’ অভিনেত্রী।

একই সাক্ষাৎকারে সালমানের ভূয়সী প্রশংসা করেন ক্যাটরিনা। নিজের জীবনে দেখা অন্যতম সাহায্যকারী মানুষ হিসেবে আখ্যা দেন সালমানকে। ক্যাটরিনা বলেন, সালমান খুবই স্বতঃস্ফূর্ত অভিনেতা। নিজের কাজের ব্যাপারে খুবই আগ্রহী। তাঁর সঙ্গেও তেমন। এ জন্যই সালমানের এত জনপ্রিয়তা ও ভক্তকুল। ‘তাঁর আশপাশের মানুষ বদলে গেছে, দর্শক বদলেছে, ইন্ডাস্ট্রি বদলেছে, কিন্তু তিনি একই রয়ে গেছেন,’ যোগ করেন ক্যাট।