পুত্রবধূর অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট করে ফের কর্তৃপক্ষের রোষানলে ট্রাম্প

Advertisements

দেশের রাজনৈতিক পালাবদল, ক্যাপিটল হিলে হামলার অভিযোগ, বারবার বেফাঁস মন্তব্য – এসবের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে (Donald Trump) নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ফেসবুকে অ্যাকাউন্ট ব্লক করে দেওয়া হয়েছে তাঁর, ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারেও জারি নিষেধাজ্ঞা। কিন্তু তাতেও চেষ্টার ত্রুটি নেই ট্রাম্পের। পুত্রবধূর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে ফের কর্তৃপক্ষের রোষানলে পড়লেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। কড়াভাবেই তাঁকে সতর্ক করে দেওয়া হল। ট্রাম্পের পোস্ট করা ভিডিওটি মুছে দিয়ে জানানো হল, কোনওভাবেই তাঁকে ফেসবুক ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না।

লরা ট্রাম্প, প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্টের পুত্রবধূ। দেখা গিয়েছে, তাঁর ফেসবুক (Facebook) প্রোফাইল থেকে ট্রাম্পের এক সাক্ষাৎকারের ভিডিও পোস্ট হয়েছে। এরপরই লরা ফেসবুক কর্তৃপক্ষের তরফে একটি ই-মেল পান। তাতে লেখা, এই ভিডিওটি অ্যাকাউন্ট থেকে ‘ডিলিট’ করা হয়েছে। কারণ, ভিডিওয় ট্রাম্পের বক্তব্য শোনা যাচ্ছে। আর তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় নিষিদ্ধ। তাই বাধ্য হয়ে ভিডিওটি মুছে দিতে হল। আসলে, পুত্রবধূ লরার অ্যাকাউন্টটি ব্যবহার করে ট্রাম্প যে নিজেই পোস্টটি করেছেন, তা বেশ টের পেয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তাই ফের কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হল।

গত জানুয়ারিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পালাবদলের সময়ে শেষ মুহূর্তে ক্যাপিটল হিলে (Capitol Hill) হামলা চালিয়ে দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর অভিযোগ ওঠে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। তারপরই তাঁকে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম থেকে কার্যত বহিষ্কার করা হয়। আজীবন তিনি ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করতে পারবেন না। কিন্তু সম্প্রতি গুঞ্জন উঠেছে, ট্রাম্প নিজেই নাকি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে চলেছেন। এক টেলিভিশন চ্যানেলের প্রতিবেদনে এমনই বলা হয়েছে। নিজের অনুরাগীদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখার জন্য এই পরিকল্পনা করেছেন ট্রাম্প। এ নিয়ে তাঁর উপদেষ্টা জেসন মিলার জানিয়েছেন, সবাই ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলার জন্য, তাঁর কথা শোনার জন্য উদগ্রীব। সম্পূর্ণ নিজের প্ল্যাটফর্মের মধ্যে দিয়ে তিনি ফিরবেন সোশ্যাল মিডিয়ায়, করবেন জনসংযোগ।