শ্রীলঙ্কায় সুন্দরী প্রতিযোগিতায় মুকুট নিয়ে কাড়াকাড়ি

Advertisements

শ্রীলঙ্কায় বিবাহিত নারীদের একটি সুন্দরী প্রতিযোগিতায় শিরোপা জেতার পর হাসপাতালে যেতে হয়েছে বিজয়ী প্রতিযোগীকে

শ্রীলঙ্কায় বিবাহিত নারীদের একটি সুন্দরী প্রতিযোগিতায় শিরোপা জেতার পর হাসপাতালে যেতে হয়েছে বিজয়ী প্রতিযোগীকে।

রবিবার (৪ এপ্রিল) রাতে কলম্বো প্রেক্ষাগৃহে অনুষ্ঠিত ওই প্রতিযোগিতায় পুষ্পিকা দে সিলভা’কে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

এ সময় মঞ্চে উপস্থিত গত বারের বিজয়ী ক্যারোলিন জুরি টান দিয়ে সিলভা’র মাথার মুকুট ছিনিয়ে নিলে মাথায় গুরুতর আঘাত পান তিনি।

শ্রীলঙ্কান সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে জানা যায়, বিজয়ী ঘোষণা করার পরেই হঠাৎ মঞ্চে উঠে গত বারের বিজয়ী ক্যারোলিন দাবি করেন, বিজয়ী সিলভা’র বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটেছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত দর্শক ও বিচারকদের অবাক করে দিয়ে ক্যারোলিন বলেন, “নিয়ম অনুযায়ী কোনো বিবাহ বিচ্ছেদপ্রাপ্ত নারী এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবে না। তাই বিজয়ীর মুকুট সিলভার মাথায় মানায় না।”

এ কথা বলার পরেই ক্যারোলিন বিজয়ীর মাথা থেকে সোনার মুকুট টেনে ছিনিয়ে এনে দ্বিতীয় স্থান অধিকারীর মাথায় পরিয়ে দেন।

এ বিষয়ে স্থানীয় এক পত্রিকা জানিয়েছে, মুকুট ছিনিয়ে নেওয়ার নেবার কারণে সিলভা’র মাথায় গুরুতর আঘাতের জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পরবর্তীতে সিলভা নিজের ফেসবুক পেজে হাসপাতালের বিছানায় শোয়া অবস্থায় নিজের একটি ছবি পোস্ট করেন।

পোস্টে সিলভা লিখেন, “মুকুটটি যখন আমার মাথা থেকে ছিনিয়ে নেওয়া হচ্ছিল তখনই আমার কষ্ট হয় মুকুটটি হারিয়ে ফেললাম ভেবে।”

তিনি আরও লিখেন, “সত্যিকারের ‘বিউটি কুইন’ এমন কেউ হতে পারে না যে অন্য কারও মুকুট ছিনিয়ে নেয়। সেই প্রকৃত বিউটি কুইন যে অন্য নারীকে মুকুট পরতে সহায়তা করে।”

এমন অপ্রত্যাশিত ঘটনার বিষয়ে সবাই তার প্রতিক্রিয়া প্রত্যাশা করলেও সিলভা জানান, “আমারও অনেক কিছু বলার আছে, কিন্তু এখন আমি কেবলমাত্র প্রয়োজনীয় কথাই বলবো।”

অবশ্য সিলভা স্বীকার করেছেন, তিনি ও তার স্বামী বর্তমানে আলাদা থাকেন। তবে বিবাহবিচ্ছেদের বিষয়টি অস্বীকার করে সিলভা জোর দিয়ে বলেছেন, “আমার বিবাহবিচ্ছেদ হয়নি।”

এদিকে এ ঘটনার পরই সিলভাকে পুনরায় বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে।