কারিনা কাপুরকে বয়কট ডাক!

Advertisements

রামায়ণে সীতার চরিত্রে অভিনয় করার প্রস্তাব পেয়েছেন বলিউডের দক্ষ ও গুণী অভিনেত্রী কারিনা কাপুর। এ চরিত্রে অভিনয় করতে তিনি ১২ কোটি টাকা পারিশ্রমিক পাবেন। এই খবর বেশ উত্তেজনা ছড়িয়েছে বলিউডে। তবে বিতর্কেরও জন্ম দিয়েছে খবরটি। কারিনা সীতা হবেন শুনেই এ অভিনেত্রীর সমালোচনায় সরব হয়েছেন নেটিজেনদের একাংশ। হঠাৎ করেই টুইটারে ট্রেন্ডিং ‘বয়কট কারিনা খান’ হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করছেন তারা।

পৌরাণিক চরিত্রদের নিয়ে সিনেমা তৈরি বলিউডে নতুন নয়। সম্প্রতি শোনা যায়, রামায়ণ নিয়ে ছবি তৈরি করতে চলেছেন পরিচালক অলৌকিক দেশাই। সেখানে সীতার চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব দিয়েছেন কারিনা কাপুরকে। সাধারণ কোনও ছবিতে অভিনয় করার জন্য নাকি ৬ থেকে ৮ কোটি টাকা পারিশ্রমিক হিসেবে নেন কারিনা।

কিন্তু সীতার চরিত্রে অভিনয় করার জন্য তিনি ১২ কোটি টাকা দর হাঁকিয়েছেন বলে শোনা গেছে। এটা শুনেই অনেকে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

তবে অধিকাংশই এখানে টেনে আনছেন ধর্মীয় বিষয়। তারা দাবি করছেন মুসলিম পুত্র তৈমুরের আম্মা কি করে সীতা হতে পারে?’ দেবী সীতা হিসেবে সাইফপত্নী কারিনাকে মানা হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়।

পুরোনো রামায়ণ ধারাবাহিকে সীতার চরিত্রে অভিনয় করা দীপিকা চিকালিয়ার ছবির পাশে কারিনার সিনেমার দৃশ্যে সিগারেট খাওয়ার ছবিতে দিয়েও কটাক্ষ করা হয় টুইটারে। এমন মন্তব্যের জেরেই ট্রেন্ডিং হয় ‘বয়কট কারিনা খান’ হ্যাশট্যাগ।

যদিও পরে আবার জানা যায়, সীতার চরিত্রে অভিনয় করছেন না কারিনা কাপুর। তবে সিনেমা নিয়ে এমন ধর্মীয় আগ্রাসন হতাশ করেছে বলিউডের অনেককেই। তারা মনে করছেন একজন অভিনেত্রী কেবল অভিনয়টাই করেন। তার ধর্ম বা ব্যক্তি পরিচয় দিয়ে তার অভিনয় যোগ্যতা কখনোই পরিমাপ করা যায় না। সেটা উচিতও না।