গুগল, টুইটার ও ফেসবুকের বিরুদ্ধে ট্রাম্পের মামলা

Advertisements

টেক জায়ান্ট গুগল, ‍টুইটার এবং ফেসবুকের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার বাকস্বাধীনতা হরণ করা হয়েছে, অভিযোগ তুলে এই মামলা দায়ের করেন তিনি। খবর বিবিসির।

মিয়ামির জেলা আদালতে স্থানীয় সময় বুধবার ক্যালিফোর্নিয়া ভিত্তিক এসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা করেন ট্রাম্প। এই প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে সেন্সরশিপের অভিযোগ তোলেন তিনি।

এই মামলায় প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের (সিইও) বিরুদ্ধেও অভিযোগ আনা হয়। তারা হলেন গুগলের সিইও সুন্দর পিচাই, টুইটারের সিইও জ্যাক ডোর্সে ও ফেসবুকের সিইও মার্ক জাকারবার্গ।

গত জানুয়ারিতে ক্যাপিটল ভবনে তার সমর্থকদের দাঙ্গার পর এসব প্ল্যাটফর্মের থেকে ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট বাতিল করে দেয়া হয়। মূলত জননিরাপত্তার স্বার্থে ট্রাম্পের এসব অ্যাকাউন্ট বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় প্রতিষ্ঠানগুলো।

নিউজার্সির বেডমিনিস্টারে নিজের মালিকানাধীন গলফ ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, এই মামলার মধ্য দিয়ে মার্কিন নাগরিক স্বাধীনতা ও বাকস্বাধীনতা প্রশ্নে আমরা ঐতিহাসিক বিজয় অর্জন করবো।

ট্রাম্পের দাবি, তিনি এসব প্রতিষ্ঠানের সেন্সরশিপের শিকার। তাই নিজের করা মামলায় তার ওপর আরোপিত সেন্সরশিপ প্রত্যাহারের আবেদন করেছেন ট্রাম্প।

এসব মামলার বিষয়ে গুগল, টুইটার ও ফেসবুক তাৎক্ষণিকভাবে কোনও মন্তব্য করেনি।