শিমুলিয়া ঘাটে পারের অপেক্ষায় সাড়ে ৬০০ শতাধিক গাড়ি

Advertisements

মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া দুই শতাধিক ও মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাটে সাড়ে চার শতাধিক গাড়ি পারের অপেক্ষায় আছে।

আজ রোববার সকাল পৌনে ১১টায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসি’র শিমুলিয়া ঘাটের উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে সকাল থেকে বহরে থাকা ১৭টি ফেরির মধ্যে নয়টি ফেরি চলাচল করছে। শিমুলিয়া ঘাটে দুই শতাধিক গাড়ি পারের অপেক্ষায় আছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এর মধ্যে ট্রাক ও প্রাইভেট কারের সংখ্যা বেশি।’

বাংলাবাজার ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক মো. জামাল উদ্দিন  বলেন, ‘গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ফেরিতে করে শুধু মানুষ পার করা হয়েছে। এর জন্য যানবাহন পারের অপেক্ষায় আটকা পড়ে গিয়েছিল।’

‘আজ রোববার সকাল পৌনে ১১টায় বাংলাবাজার ঘাটে সাড়ে চার শতাধিক গাড়ি পারের অপেক্ষায় আছে। এর মধ্যে পণ্যবাহী ট্রাকের সংখ্যা বেশি,’ যোগ করেন তিনি।

শিমুলিয়া নদী বন্দরের নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী পরিচালক ও সহকারী বন্দর ও পরিবহন কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. শাহাদাত হোসেন জানান, মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ও মাদারীপুরের বাংলাবাজার, শরিয়তপুরের মাঝিকান্দি নৌপথে ৮৭টির মধ্যে ৩৫ থেকে ৪০টি লঞ্চ চলাচল করছে।

‘বাকি গুলোর মালিক ও স্টাফ না থাকার কারণে চালু করা যায়নি’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘পর্যায়ক্রমে সেগুলো চালুর চেষ্টা চলছে।’

তিনি আরও জানান, শিমুলিয়া ঘাটে যাত্রী সংখ্যা কম। তবে, বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাংলাবাজার ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীদের ভিড় বাড়ছে।