করোনার মধ্যেই অদ্ভুত ধরনের ‘ম্যালেরিয়া’র হানা কলকাতায়!

Advertisements

গোটা বিশ্বের ন্যায় প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বিপর্যন্ত ভারতও। দেশটির অন্যান্য রাজ্যে মতো পশ্চিমবঙ্গেও তাণ্ডব চালিয়েছে এই ভাইরাস। এর মধ্যেই সেখানে অদ্ভুত ধরনের ‘ম্যালেরিয়া’ রোগের দাপট দেখা যাচ্ছে।

জানা গেছে, সেখানে এমন কিছু রোগী শনাক্ত হয়েছে যাদের শরীরে ম্যালেরিয়া রোগের জীবাণু পাওয়া গেছে। কিন্তু তাদের কাঁপুনি দিয়ে জ্বর আসেনি। এখনও পর্যন্ত ৪ শিশুসহ মোট ১০ জন এই অদ্ভুত ধরনের ম্যালেরিয়া রোগে আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে। ম্যালেরিয়ার এই নতুন ধরন নিয়ে চিন্তিত চিকিৎসকরা।
জানা গেছে, সম্প্রতি বেলভিউ হাসপাতাল, ভাগীরথী নেউটিয়া ডায়গোনস্টিক সেন্টারে এই নতুন ধরনের ম্যালেরিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে ৫ জন ভর্তি হয়েছে।

শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ প্রভাস প্রসূণ গিরি জানিয়েছেন, ম্যালেরিয়ার স্বাভাবিক উপলর্গ হল কাঁপুনি দিয়ে জ্বর আসা। কিন্তু এক্ষেত্রে তা হচ্ছে না। তাই রোগ নির্ণয় করতে সমস্যা হচ্ছে। কলকাতায় গত ২ সপ্তাহে ৪ শিশুসহ ১০ জন এই রোগে আক্রান্ত হয়েছে। এরা প্রত্যেকেই জ্বরহীন ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত।

জানা গেছে, বেলভিউতে জ্বরহীন ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে যারা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে, তাদের মধ্যে একজনকে ভেন্টিলেশনে দিতে হয়েছে। চিকিৎসকদের মতে, যারা এই নতুন ধরনের রোগে আক্রান্ত হয়েছে, তাদের কারো জ্বর ছিল না। তারা প্রত্যেকেই ডায়রিয়া, সর্দি ও কাশিতে আক্রান্ত ছিল। সর্দি-কাশির ওষুধ দেওয়া সত্বেও সুস্থ না হওয়ায় তাদের কোভিড, ডেঙ্গু ও ম্যালেরিয়া পরীক্ষা করানো হয়। সেই পরীক্ষাতেই ম্যালেরিয়া রোগ ধরা পড়ে।

বিশেষজ্ঞরা জানান, করোনাভাইরাস যেমন বারবার তার চরিত্র বদলাচ্ছে, তেমনি একই রকমভাবে চরিত্র বদলাচ্ছে ম্যালেরিয়ার প্যারাসাইটও। এখন তাই ম্যালেরিয়ায় আক্রান্তদের পুরনো উপসর্গ ধরা পড়ছে না। রোগ নির্নয়ে দেরি হয়ে যাওয়ায় চিকিৎসা পরিষেবা শুরু করতেই দেরি হয়ে যাচ্ছে।

 

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস