বাংলাদেশে আসতে চান ‘মানিকে মাগে হিতে’ গানের শিল্পী

Advertisements

খুব ছোটবেলায় বাবা-মায়ের সঙ্গে বাংলাদেশে এসেছিলেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ‘মানিকে মাগে হিতে’ গানের শিল্পী ইয়োহানি দিলোকা ডি সিলভা। আবারও বাংলাদেশে আসতে চান তিনি। এদেশে এসে গাইতে চান গান। সম্প্রতি বাংলাদেশের একটি গণমাধ্যমকে দেওয়া ভিডিও সাক্ষাৎকারে এই ইচ্ছার কথা জানান শ্রীলংকান তরুণী ইয়োহানি।

সাক্ষাৎকারে ইয়োহানি দিলোকা ডি সিলভা বলেন, বাংলাদেশে আমি যখন গিয়েছিলাম, তখন এতোটাই ছোট ছিলাম যে, সেই স্মৃতি মনে করতে পারছি না। সে সময়ের কথা আমার খুব বেশি মনে নেই। তবে আবারও বাংলাদেশে যেতে চাই। যত শিগগিরই সম্ভব যেতে চাই, বলতে পারেন আগামী দুই বছরের মধ্যে।’

‘মানিকে মাগে হিতে’ বর্তমানে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টিকটকসহ সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে ভাইরাল। গানটি এতদিনে শুনেননি এমন লোক কম। তবে গানটির অর্থ জানেন না অনেকেই। কোন ভাষার গান এটি- তাও অনেকে হয়তো জানেন না। তবুও গানের ভিডিওতে মজেছেন বহু মানুষ, শেয়ার করছেন নিজের ওয়ালে।

শুধু বাংলাদেশে নয় ভারত, পাকিস্তানসহ আরও অনেক দেশে ভাইরাল গানটি। মূলত গায়িকার গায়কীর জন্যই গানটি ভাইরাল বলে অনেকে বলছেন। রাতারাতি আলোচনায় এসেছেন এই গানের শিল্পী, হয়ে উঠেছেন স্টার।

এই ‘মানিকে মাগে হিতে’ গানটি যে বাংলাদেশে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে তা জানেন ইয়োহানি। ভিডিও সাক্ষাৎকারে সে কথা অকপটে বলেছেন তিনি।

বাংলাদেশের প্রতি এতোটা ভালোবাসার দৃষ্টান্ত হিসেবে বাংলা ভাষায় কোনো গান গাইবেন? জবাবে ইয়োহানি বলেন, ‘হ্যাঁ অবশ্যই আগ্রহী। আমি আসলে নতুন কিছু করতে ভালোবাসি। যদি বাংলা ভাষা শিখতে পারি, তাহলে অবশ্যই বাংলায় গান গাইব।’

বাংলাদেশে নিজের গানের শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে এ শিল্পী বলেন, ‘আমি সবাইকে ধন্যবাদ জানাই এবং তাদের কাছে কৃতজ্ঞ যারা আমার মিউজিক ভিডিও দেখেছেন এবং গানটি শুনেছেন। এটা অসাধারণ এক অনুভূতি। আশা করব আমার পরের গানগুলো আপনাদের ভালো লাগবে। সাবধানে থাকবেন। সেটাই সবচেয়ে বড় চাওয়া।’

ইয়োহানি ডি সিলভার বয়স ১৮ বছর। তিনি গান লেখেন, সুর করেন ও কণ্ঠ দেন। নিজের দেশেও বেশ জনপ্রিয় ইয়োহানি। সেখানে নিয়মিত স্টেজ শো করেন। এর আগে তার গাওয়া আরেকটি গান ভাইরাল হয় ফেসবুকে।

তবে অনেক আগে থেকে তিনি ইউটিউবে বেশ জনপ্রিয়। তার বাদ্যযন্ত্রের ব্যবসাও রয়েছে। বিদেশি বাদ্যযন্ত্র আমদানি করে শ্রীলংকায় বিক্রি করেন তিনি। স্থানীয় বাদ্যযন্ত্র রফতানি করেন বিভিন্ন দেশে।

‘মানিকে মাগে হিতে’ গানটি তাকে নিজের দেশের বাইরেও তারকাখ্যাতি এনে দিলো। শ্রীলংকায় এখন তাকে ‘র‌্যাপ প্রিন্সেস’ বলা হচ্ছে। হু হু করে বাড়ছে তার ফলোয়ার। ইউটিউবে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যাও বেড়ে চলেছে।