শীতকালে আমলকী কেন খাবেন?

Advertisements

প্রকৃতিতে হালকা ঠান্ডা অনুভূত হচ্ছে । এই সময় ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়া, সর্দি-কাশিসহ অন্যান্য মৌসুমি রোগ দেখা দেয় অনেকের। ঋতু পরিবর্তনের সময় তাই খাদ্যাভ্যাসেও পরিবর্তন আনা উচিত বলে মনে করেন অনেক চিকিৎসক।

শীতের সময় পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ প্রচুর সবজি ও ফল পাওয়া যায়।  এগুলো শরীরকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। আমলকী এমন একটি ফল যা শীতকালে শরীর সুস্থ রাখতে দারুণ ভূমিকা রাখে। এতে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টের মতো উপাদান পাওয়া যায়। শরীরকে ভিতর থেকে পুষ্টি জোগায় এই ফল। শীতকালে আমলকি খেলে যেসব উপকারিতা পাওয়া যায়-

রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি : ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট থাকায় আমলকী ভিতর থেকে দূষিত পদার্থ বার করে দেয়। ফলে রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ে।

ত্বকের সুস্থতায় : অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় রক্ত পরিস্কার রাখে আমলকী। এ ছাড়াও ত্বকের অকাল-বার্ধ্যক্য রোধ করতে সাহায্য করে এই ফল।

ওজন ঝরাতে : শীতকাল যেহেতু উৎসবের সময়, তাই এই সময় খাওয়া-দাওয়াও বেশি হয়ে যায়। আমলকী ডিটক্সিফিকেশনের মাধ্যমে ওজন কমাতে ভূমিকা রাখে।

হজম শক্তি বৃদ্ধি : শীতকালে হজমের গণ্ডগোল লেগেই থাকে। আমলকী বিপাক ক্রিয়াকে উন্নত করে, হজমশক্তিকে বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে।

ডায়াবেটিস : আমলকীতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি থাকায় শরীরে ‘অক্সিডেটিভ স্ট্রেস’এর মাত্রাকে কমায়। ফলে রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে থাকে।