৩-৬ মাসের মধ্যে বিশ্বে আধিপত্য করবে ওমিক্রন: দাবি সিঙ্গাপুরের চিকিৎসকের

Advertisements

করোনাভাইরাসের নতুন ওমিক্রন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। আগামী তিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে এটি বিশ্বব্যাপী আধিপত্য বিস্তার করতে পারে বলে জানিয়েছেন সিঙ্গাপুরের মাউন্টি এলিজাবেথ নোভেনা হসপিটালের সংক্রামক রোগ চিকিৎসক ডা. লিওং হোয়ে নাম। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে সিএনবিসি।

ডা. লিওং বলেন, ওমিক্রন আগামী তিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়বে এবং আধিপত্য বিস্তার করবে।

নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন ধরা পড়ার পর থেকে দক্ষিণ আফ্রিকায় ব্যাপক হারে বাড়ছে করোনা রোগী। সর্বশেষ হিসেবে দেখা গেছে, দেশটিতে একদিনে সাড়ে আট হাজার করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর আগের ২৪  ঘণ্টায় রোগী পাওয়া গিয়েছিল মাত্র চার হাজার ৩০০। অর্থাৎ একদিনের ব্যবধানে রোগী বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) এটিকে উদ্বেগজনক ভ্যারিয়েন্ট হিসাবে শ্রেণিবদ্ধ করেছে। তারা বলেছে, প্রাথমিক প্রমাণগুলি ইঙ্গিত করে, এটিতে পুনরায় সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি। এখন পর্যন্ত ২৪টি দেশে ধরা পড়েছে এই ভ্যারিয়েন্ট।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনাভাইরাসের এই ভ্যারিয়েন্টটি অন্তত ৩২টি মিউটেশন (জিনগত গঠনের পরিবর্তন) ঘটিয়েছে। যার বৈজ্ঞানিক নাম বি.১.১.৫২৯। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে মিউটেশন ছিল ১০টি আর বেটায় ৬টি। আর ওমিক্রনের ‘ইউনিক’ মিউটেশনের সংখ্যা এর অনেক বেশি। মোট ২৬টি। এতেই বোঝা যায় একে মোকাবিলা করা কত কঠিন হতে পারে।

ওমিক্রন নিয়ে বিজ্ঞানীরা যে কারণে সবচেয়ে বেশি উদ্বিগ্ন তা হলো, এটি অত্যন্ত দ্রুত এবং সহজে ছড়াতে পারে এবং মানবদেহের রোগপ্রতিরোধ ব্যবস্থাকে ভেঙে দিতে পারে। যার ফলে এর বিরুদ্ধে টিকা কম কার্যকর হবে বলে মনে করা হচ্ছে ।