রেকর্ড গড়া জুটি, রানের পাহাড় গড়ার পথে নিউজিল্যান্ড

Advertisements
দুর্দান্ত দুটি সেশনের পর তৃতীয় সেশনেও চলছে নিউজিল্যান্ড আধিপত্য। ক্রাইস্টচার্চ টেস্টের প্রথম দিন প্রথম ইনিংসে স্বাগতিকদের স্কোর দাঁড়িয়েছে ৮১ ওভারে ১ উইকেটে ৩০২ রান।
হ্যাগলি ওভালে চমৎকার ব্যাটিংয়ে এরই মধ্যে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন টম ল্যাথাম। তাতে আছে কিছুটা সৌভাগ্যের ছোঁয়াও। রিভিউ নিয়ে রক্ষা এবং বাংলাদেশের ফিল্ডারদের ক্যাচ মিসে ইনিংস লম্বা করে নিয়েছেন কেন উইলিয়ামসনের অনুপস্থিতিতে কিউই অধিনায়কের দায়িত্ব সামলানো এই ওপেনার। বাংলাদেশের বোলারদের শাসন করে ১৩৩ বলে টেস্ট ক্যারিয়ারের ১২তম সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। অপরাজিত আছেন ১৭০ রানে। তার সঙ্গে প্রতিরোধ গড়ে হাফসেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন প্রথম টেস্টের সেঞ্চুরিয়ান ডেভন কনওয়ে। ব্যাট করছেন ৭০ রানে। ১৫৪ রান যোগ করে ফেলেছে এই জুটি।
টস হেরেও শুরু থেকে বাংলাদেশের ওপর আধিপত্য বিস্তার করে খেলেছে স্বাগতিকরা। তাতে দুই সেশন মিলিয়ে বাংলাদেশ নিতে পেরেছে একটি মাত্র উইকেট। প্রথম সেশন উইকেটশূন্য থেকে লাঞ্চের পর পাওয়া গেছে শুধু উইল ইয়ংয়ের উইকেট। শরিফুল ইসলামের বলে নাঈম শেখের হাতে ধরা পড়েন এই ওপেনার। ফেরার আগে অবশ্য পূরণ করে যান হাফসেঞ্চুরি। ১১৪ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ৫৪ রান করেছেন ইয়ং।
এর আগে-পরে শুধু হতাশাতে কেটেছে বাংলাদেশের। ভাগ্যও সঙ্গে ছিল না। এক ওভারে, আরও স্পষ্ট করে বললে ৪ বলের মধ্যে দুইবার বেঁচে যান ল্যাথাম! তাসকিন আহমেদ ও শরিফুল ইসলাম যখন উইকেট এনে দিতে পারছিলেন না, মুমিনুল হক বল তুলে দেন এবাদত হোসেনের হাতে। আগের টেস্টের নায়ক দ্বিতীয় বলেই এনে দিয়েছিলেন ‘উইকেট’। কিন্তু হায়, ফিল্ড আম্পায়ার এলবিডব্লিউ দিলেও রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান ল্যাথাম। ওই ওভারের পঞ্চম বলে আবারও ব্যাটার ল্যাথাম, আবারও ফিল্ড আম্পায়ারের এলবিডব্লিউয়ের আউটের সংকেত। কিন্তু কিউই অধিনায়ক রক্ষা পান রিভিউয়ে। শুরু থেকেই দিনটা মুমিনুলদের ছিল না।
এদিকে কুঁচকির চোটে ছিটকে গেছেন অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিম। তার জায়গায় সুযোগ পেয়েছেন নুরুল হাসান সোহান। আরেকটি পরিবর্তন অনুমতিই ছিল। চোটের কারণে ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয়ও নেই। তার জায়গায় টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হয়ে গেছে নাঈম শেখের।
নিউজিল্যান্ডের একাদশে একটি পরিবর্তন। অলরাউন্ডার রাচিন রবীন্দ্রর জায়গায় এসেছেন আরেক অলরাউন্ডার ড্যারিল মিচেল।
বাংলাদেশ একাদশ: সাদমান ইসলাম, নাঈম শেখ, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), লিটন দাস, নুরুল হাসান সোহান (উইকেটকিপার), ইয়াসির আলী, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, এবাদত হোসেন।
নিউজিল্যান্ড একাদশ: টম ল্যাথাম (অধিনায়ক), উইল ইয়ং, ডেভন কনওয়ে, রস টেলর, হেনরি নিকোলস, টম ব্লান্ডেল (উইকেটকিপার), ড্যারিল মিচেল, কাইল জেমিসন, টিম সাউদি, নিল ওয়াগনার, ট্রেন্ট বোল্ট।