১৭ ডিসেম্বর থেকে সচিবালয়ের চারপাশ হবে নীরব জোন

Advertisements

চলতি বছরের ১৭ ডিসেম্বর থেকে সচিবালয়ের চারপাশকে শব্দ দূষণমুক্ত বা নীরব জোন ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

তিনি বলেছেন, সারাদেশে বেআইনি ইটভাটা বন্ধ করা, ভবন নির্মাণ সামগ্রী ঢেকে রাখা, মেট্রোরেলসহ বড় প্রকল্প এলাকায় বায়ু দূষণ রোধে নিয়মিত পানি ছিটানোসহ ২০২৪ সালের পর পোড়া ইট ব্যবহার করা হবে না। সে সময় থেকে ব্লক ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আর ১৭ ডিসেম্বর থেকে সচিবালয়ের চারপাশকে নীরব জোন ঘোষণা করা হবে।

সোমবার (২৫ নভেম্বর) সচিবালয়ে পরিবেশ বন ও জলবায়ু মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ঢাকার বায়ু ও শব্দদূষণ প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের লক্ষ্যে  আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

সভায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুল্লাহ আল মোহসীন চৌধুরী, মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়, শিল্প মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি করপোরেশনসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তর ও সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন বলেন, আগামী ১৭ ডিসেম্বর থেকে জিরো পয়েন্ট, পল্টন মোড়, কদম ফোয়ারা, শিক্ষাভবন মোড় হয়ে জিরো পয়েন্ট এলাকাকে নীরব জোন বা শব্দবিহীন এলাকা হিসেবে ঘোষণা করা হবে। এ এলাকায় কোনো পরিবহনকে কোনো প্রকার হর্ন বাজাতে বা শব্দ সৃষ্টি করতে দেওয়া হবে না। ঢাকা শহরে শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণের পাইলট কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এটা বাস্তবায়ন করা হবে।

‘শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে হাইড্রোলিক হর্ন পুরোপুরি বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। শহরে অনাকাঙ্ক্ষিত ও অপ্রয়োজনীয় শব্দের উৎসের সন্ধান করে তা বন্ধ করা হবে।’